1. admin@chunarughat24.com : admin :
সোমবার, ২৫ জানুয়ারী ২০২১, ০৪:৪৬ অপরাহ্ন

ভালো থাকা যায়

আরিফ জামান
  • সময় : শনিবার, ৯ জানুয়ারি, ২০২১
  • ১০৭ বার পঠিত
ভালো থাকা যায়

আরিফ জামান।।

১.মন খারাপ করবেন না:-

মন খারাপ কেনো করবেন? কি জন্য মন খারাপ হচ্ছে সেটা অনুসন্ধান করে দ্রুত পদক্ষেপ নিন। জীবনে খারাপ সময় আসতেই পারে তাই বলে মন খারাপ করতে হবে?মনে রাখবেন জীবন কোনো একটা ছোট বিষয়ের না।আজ যে কারনে মন খারাপ দুদিন গেলেই সেটা মনেই থাকবেনা আপনার।আজকের এই সামন্য খারাপ বিষয় আপনার জীবনের সবকিছু না। তাই মন খারাপ না করে উঠে দাঁড়ান। আপনার নিদ্দিষ্ট গন্তব্যে চলতে শুরু করেন।

২.নিজেকে কখনো ব্যর্থ ভাববেন না:-

ঐ প্রবাদটা মনে আছে তো “ব্যর্থতায় সফলতার স্তম্ভ”। কোনো কাজে ব্যর্থ হয়েছেন তাতে কি?আপনি লেগে থাকলে সফলতা আসতে বাধ্য। আপনি কি পড়েন নি রবার্ট ব্রুশোর কথা? যিনি বারবার পরাজিত হয়েও হাল ছাড়েননি।

৩.নিজেকে ভালোবাসতে শিখুন:

এই কথাটা সবসময়ই আমি বলি নিজেকে ভালোবাসুন সবার থেকে।জীবনে অনেক মানুষ আসবে অনেক মানুষ যাবে তাই বলে জীবন কি থেমে যাবে? অন্যকে ভালোবাসুন তবে নিজের চেয়ে না। আপনি যদি মনে করেন তাকে ছাড়া বাঁচতে পারবেন না তাহলে বোকার স্বর্গে বাস করছেন। এরকম বহু উদাহরন আছে যে মানুষটি বলেছিলো সে তার কলিজা সেই মানুষটায় সেই কলিজা ছাড়ায় বহুবছর দিব্যি বেঁচে আছে।

৪. ঘৃণা পাশাপাশি ক্ষমা করতে শিখুন:

দুটো গুণের কথা একসাথে বললাম এজন্য যে ঘৃণা করতে শিখুন নিজেকে সামলে নেবার জন্য। আপনি যদি প্রতারককে ঘৃণা না করতে পারেন তাহলে কখনোই সামনের দিকে আগাতে পারবেন না। ঘৃণা করার সাথে সাথে ক্ষমাও করতে শিখুন নিজের প্রশান্তির জন্য। ক্ষমা এমন একটি গুন যা মানুষকে মহৎ করে।

৫.ধর্মীয় অনুশাসন মেনে চলুনঃ-

যদি আপনি আত্মার প্রশান্তি চান তবে অবশ্যই আপনাকে ধর্মীয় অনুশাসন মেনে চলতে হবে। ধর্ম আপনাকে পাপ ও চরিত্রহীন হওয়া থেকে রেহায় দেবে। আর এই দুটো ঠিক থাকলে আপনার সামনে সকল বাঁধা ধূলির ন্যায় উঁড়ে যাবে।

৬.প্রকৃতির কাছে ফিরে যানঃ-

কিছু কিছু সময় প্রকৃতির কাছে ফিরে যান। এই যেমন কখনো কখনো ছাদে উঠে আকাশ, চাঁদ তারা দেখুন। একবার ভাবুন সৃষ্টিজগত সম্পর্কে।
সমুদ্রের কাছে যান। শুনতে থাকুন তার ঢেউয়ের গর্জনে ভেসে আসা অচেনা কোনো আর্তনাদ।মিলাতে থাকুন আপনার আর্তনাদ কি তার চেয়ে বেশি? নিজেকে ভাবুন আপনার কাছে এই বিশাল সৃষ্টি জগতের কি প্রাপ্য! নিজেকে বদলানোর জন্য প্রকৃতির কাছ থেকে শিক্ষা নিন।

৭.নিজেকে ব্যস্ত রাখুনঃ-

নিজেকে ভালো রাখার সবচেয়ে বড় মাধ্যম হলো নিজেকে ব্যস্ত রাখা। আপনার হাতে একটা কাজ থাকলে তো ভালো। আর যদি কাজ নাই থাকে তবে বই পড়ুন। প্রচুর পড়তে হবে। পড়লেই জানবেন আপনি কতটুকু এখনো জানেন না। সারাদিন নাটক বা মুভি না দেখে ইন্টারনেটে আরো অনেক কিছুই জানার আছে সেগুলি খুঁজে খুঁজে বের করুন।

৮.পরামর্শ করুন তবে সিদ্ধান্ত নিন নিজে:-

যে কোনো বিষয়ে পরামর্শ করুন নিকট আত্মিয় বা বন্ধুদের সাথে। তবে সমস্যা যেহেতু আপনার তাই সিদ্ধান্ত আপনাকেই নিতে হবে। অন্যর সিদ্ধান্ত গ্রহন করলে যদি ভুল হয় তবে সারাজীবন পস্তাবেন। কিন্তু নিজের সিদ্ধান্ত ভুল হলেও সান্ত্বনা পাবেন।

৮.নিজের ব্যাক্তিত্বকে ধরে রাখবেন:

আপনাকে সফল হতে হলে অবশ্যই ব্যাক্তিত্বসম্পন্ন হতে হবে। আপনি যদি গোল আলুর মত নিজেকে সবখানে বিলাতে থাকেন তাহলে সবার কাছে হাসির পাত্রে পরিনত করবেন। সম্মান জিনিসটা মানুষের ব্যাক্তিত্বের সাথে সম্পর্কীত। তাই নিজেকে ব্যাক্তিত্বসম্পন্ন মানুষ হিসাবে গড়ে তুলুন।

৯.নিন্দুকের কথায় কান দেবেন না:

পাছে মানুষ অনেক কথায় বলবে তবে সেসব কথায় কান না দিয়ে নিজের উদ্দেশ্য সামনে রেখে পথ পাড়ি দিন। আপনি মন যা চাই তাই করুন তবে সেটা অবশ্যই ভালো কিছু কিনা সেটা যাচাই করুন। অন্য কি বললো না বললো কানে নেবার প্রয়োজন নেই।

১০ . নিজের মেধাকে কাজে লাগাতে শিখুন:

আপনি কি সেই গল্পটা পড়েছেন? একটা ঈগলছানা হঠাৎ একদিন একটা মুরগীর সামনে পড়ে গেলো। মুরগীটা ঈগলছানাকে তার বাচ্চাদের সাথে লালনপালন করতে লাগলো। ঈগলছানা বেশ বড় হলো। তখন সে দেখলো বড় বড় পাখি কি সুন্দর করে ডানা মেলে আকাশে উঁড়ে। ঈগলপাখিটা তখন মুরগীটাকে বললো মা ওই পাখিদের মত আমিও উঁড়তে চাই। তখন মুরগীটা চোখ বড় বড় করে বললো কি বলো বাবা ওদের মত উঁড়া যায় না। আমরা কি আর ওদের মত শক্তিশালী? তখন ঈগলটা ভাবলো হয়তো সত্যিই তাই। সেই ঈগলপাখিটা জানলোই না যে তারও উঁড়বার শক্তি আছে তাদের মত। তাই নিজের মেধার ব্যাপারে আত্মবিশ্বাসী হন। আপনার মেধাকে গোপন না রেখে প্রকাশ করতে শিখুন।

১১.স্বপ্নকে বড় করে দেখুন:-

স্বপ্নকে বড় করে দেখা শুরু করুন। সবাই স্বপ্ন দ্যাখে তবে বাস্তবায়ন করাটা জরুরী। আপনার স্বপ্ন থাকবে বড় তবে ছোট থেকে শুরু করুন। ছোট ছোট স্বপ্নের সফলতায় আপনাকে পারে সত্যিকারের বড় স্বপ্নে পৌঁছে দিতে।

আরিফ জামানঃ কবি ও লেখক।

Facebook Comments
এ জাতীয় আরও খবর

ফেসবুকে আমরা

স্বত্ব সংরক্ষিত © 2020 চুনারুঘাট
কারিগরি Chunarughat
Don`t copy text!