1. admin@chunarughat24.com : admin :
ভারতে কৃষক আন্দোলনঃ প্রজাতন্ত্র দিবসে রণক্ষেত্র দিল্লী
শনিবার, ১৯ জুন ২০২১, ০৯:৩২ অপরাহ্ন
শিরোনাম :
শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান খুলে দেওয়ার দাবীতে মানববন্ধন থেকে আল্টিমেটাম মঙ্গলে জীবনের অস্তিত্ব আছে কী? চুনারুঘাটে অর্থনৈতিক অঞ্চল প্রতিষ্ঠার দাবীতে খোলা চিঠি চীনের সিনোফার্মের টিকা প্রয়োগের মাধ্যমে দ্বিতীয় পর্যায়ের টিকাদান শুরু সাইয়েদ ইব্রাহিম রায়িসি ইসলামী প্রজাতন্ত্র ইরানের ১৩তম প্রেসিডেন্ট ২২ জুন থেকে খুলনায় এবং ২০ জুন থকে বগুড়ায় এক সপ্তাহের লকডাউন জীবন বিপর্যয় রোধকল্পে সামাজিক নিরাপত্তা: কল্পনা ও নির্মম বাস্তবতা এবার করোনার রহস্যময় ‘বাংলাদেশ ভ্যারিয়েন্ট’! ঢাকা ব্যাংকের ভল্ট থেকে পৌনে ৪ কোটি টাকা উধাও, ২ কর্মকর্তা গ্রেফতার গাজা উপত্যকায় ইসরায়েলের বিমান হামলা

ভারতে কৃষক আন্দোলনঃ প্রজাতন্ত্র দিবসে রণক্ষেত্র দিল্লী

আশরাফুল ইসলাম
  • সময় : মঙ্গলবার, ২৬ জানুয়ারি, ২০২১
  • ১৯৪ বার পঠিত
ভারতে কৃষক আন্দোলনঃ প্রজাতন্ত্র দিবসে রণক্ষেত্র দিল্লী
ছবিঃ সংগ্রহ।

আশরাফুল ইসলাম।। ভারতে মোদি সরকারের নতুন কৃষি আইন বাতিলের দাবিতে কৃষকরা ট্রাক্টর চালিয়ে শহরে প্রবেশ করার চেষ্টা করে। কয়েকটি জায়গায় কৃষকরা পুলিশের ব্যারিকেড ভেঙ্গে ফেলে। বিক্ষোভরত কৃষকদের সঙ্গে পুলিশের সংঘর্ষে উত্তাল দিল্লী। দেশটির প্রজাতন্ত্র দিবসেই কৃষকদের লাঠিপেটা করেছে পুলিশ, ছত্রভঙ্গ করতে ছোড়া হয়েছে কাঁদানে গ্যাস।

কৃষক- পুলিশ সহিংসতায় ট্রাক্টর উল্টে এক কৃষকের মৃত্যু হয়েছে বলে জানিয়েছে ভারতীয় সংবাদমাধ্যমগুলো। তবে পুলিশের গুলিতে মারা গেছেন ওই ব্যক্তি- এমন দাবী বিক্ষোভকারীদের।

মঙ্গলবার (২৬ জানুয়ারি) কৃষকদের ট্রাক্টর মিছিল ঘিরে রণক্ষেত্রে পরিণত হয় ভারতের রাজধানী শহর দিল্লীর আইটিও (আয়কর ভবন) চত্বর।

ভারতে ক্ষমতাসীন বিজেপি সরকারের করা নতুন ‘বাজারবান্ধব’ তিনটি আইনের বিরুদ্ধে প্রায় দুই মাস ধরে চলছে ভারতের ইতিহাসে অন্যতম দীর্ঘ এই কৃষক আন্দোলন।

দেশে বিদেশে সমালোচনার মুখে সরকার পক্ষ আপাতত আইনগুলো স্থগিত রাখার প্রস্তাব দিয়েছে। তবে কৃষকদের দাবি, এই আইন বাতিল ছাড়া কোনো কথা নেই।

বিষয়টি নিয়ে কয়েক দফা আলোচনার পর দিল্লি পুলিশ মঙ্গলবারের সমাবেশের অনুমতি দিয়েছিলো। তবে শর্ত ছিল, প্রজাতন্ত্র দিবসের অনুষ্ঠানে কোনোভাবেই বিঘ্ন ঘটানো যাবে না।

দিল্লির ছয়টি প্রবেশপথ থেকে কর্মসূচি শুরুর পরিকল্পনা ছিল কৃষকদের। কিন্তু পুলিশ এর সবগুলো পথ অবরোধ করে নতুন একটি রুট ঠিক করে দেয়।

তবে মঙ্গলবার (২৬ জানুয়ারি) সিংঘু, টিকরি ও গাজিপুর এলাকায় পুলিশের ব্যারিকেড ভেঙ্গে ট্রাক্টর নিয়ে এগিয়ে যান আন্দোলনকারীরা।

একপর্যায়ে একদল বিক্ষোভকারী মোঘল শাসকদের তৈরি ঐতিহাসিক লাল কেল্লা কমপ্লেক্সের ভেতরে ঢুকে পড়ে এবং স্তম্ভ বেয়ে উঠে শিখদের প্রতীক খালসা পতাকা টাঙিয়ে দেয়।

সংবাদ্মাধ্যমে জানা যায়, সবশেষ পরিস্থিতি নিয়ে আলোচনা করতে ভারতীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহ জরুরি বৈঠক ডেকেছেন। দিল্লিতে আরও আধা-সামরিক বাহিনী মোতায়েনের নির্দেশও দিয়েছেন তিনি।

এছাড়াও, উদ্ভুত পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে সিংঘু, গাজিপুর, তিকরি, মুকারবা চৌক, নানগ্লোইসহ পার্শ্ববর্তী এলাকাগুলোতে ইন্টারনেট সেবা বন্ধ রেখেছে কেন্দ্রীয় সরকার।

অনলাইন।

Facebook Comments
এ জাতীয় আরো খবর

ফেসবুকে আমরা

স্বত্ব সংরক্ষিত © 2020-2021 চুনারুঘাট
কারিগরি Chunarughat
Don`t copy text!