1. admin@chunarughat24.com : admin :
এনামুল হক মোস্তফা শহীদের ৫ম মৃত্যুবার্ষিকী আজ
বুধবার, ২১ এপ্রিল ২০২১, ০২:১৫ পূর্বাহ্ন
শিরোনাম :
ইসরায়েলের পার্লামেন্টারি কমিটির নির্বাচনে নেতানিয়াহুর পরাজয় বিশ্বের সোয়া ১৪ কোটি মানুষ করোনায় আক্রান্ত মিগুয়েল দিয়াজ ক্যানেল কিউবায় নতুন নেতা হিসেবে নির্বাচিত হলেন ফোর্বস ম্যাগাজিনে জায়গা পেলো বাংলাদেশী ৯ তরুণ ‘চিকিৎসক ও পুলিশের পাল্টাপাল্টি বিবৃতি কাম্য নয়’ ধান ৮০ শতাংশ পাকলেই কাটার তাগিদ দিয়েছে হবিগঞ্জ জেলা প্রশাসন সারাদেশের অধঃস্তন আদালতে ১০৬৮১ আসামীর জামিন চিকিৎসকের শব্দ অরুচিকর, ব্যবস্থা গ্রহণের দাবী জানালো পুলিশ সার্ভিস এসোসিয়েশন চট্টগ্রামে বিদ্যুৎকেন্দ্রে সংঘর্ষে শ্রমিক নিহতের ঘটনায় মামলা, তদন্ত কমিটি গঠন ‘কঠোর লকডাউন’ আরো এক সপ্তাহ বাড়ানোর সিদ্ধান্ত

এনামুল হক মোস্তফা শহীদের ৫ম মৃত্যুবার্ষিকী আজ

আশরাফুল ইসলাম
  • সময় : বৃহস্পতিবার, ২৫ ফেব্রুয়ারি, ২০২১
  • ১৮৭ বার পঠিত
এনামুল হক মোস্তফা শহীদের ৫ম মৃত্যুবার্ষিকী আজ

বাংলাদেশের একজন প্রখ্যাত রাজনীতিবিদ, বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের অন্যতম নেতা, মহান ভাষা আন্দোলন নেতা, মুক্তিযুদ্ধের অন্যতম সংগঠক ও বীর মুক্তিযোদ্ধা, স্বাধীনতা পুরষ্কার ও অমর একুশে পদকপ্রাপ্ত ব্যাক্তিত্ব, সাবেক সমাজকল্যাণ মন্ত্রী, চুনারুঘাট-মাধবপুর নির্বাচনী আসন থেকে ৬ বার নির্বাচিত সাংসদ এনামুল হক মোস্তফা শহীদ’র ৫ম মৃত্যু বার্ষিকী আজ।

২০১৬ সালের ২৫ ফেব্রুয়ারি ঢাকার স্কয়ার হাসপাতালে তিনি মৃত্যুবরণ করেন। হবিগঞ্জের চুনারুঘাটের কৃতি সন্তান হিসেবে দলমত নির্বিশেষে তাঁকে আজো গভীর শ্রদ্ধার সাথে স্মরণ করেন অত্র অঞ্চলের মানুষেরা।

একাধারে বহু গুণে গুণান্বিত এনামুল হক মোস্তফা শহীদ ২৮ মার্চ ১৯৩৮ সালে ব্রিটিশ ভারতের আসামের বা বর্তমান বাংলাদেশের হবিগঞ্জ জেলার চুনারুঘাটের উবাহাটা ইউনিয়নের কুটিরগাঁও গ্রামে জন্মগ্রহণ করেন। তাঁর বাবা আব্দুল হক পেশায় চিকিৎসক ছিলেন এবং মাতার নাম খুদেজা খাতুন।

এনামুল হক মোস্তফা শহীদ ১৯৬০ থেকে ৬৮ সাল পর্যন্ত হবিগঞ্জ জে কে অ্যান্ড এইচ কে উচ্চ বিদ্যালয়ের শিক্ষক ছিলেন।

তিনি ১৯৫২ সালের ভাষা আন্দোলন, ১৯৬৬ সালের ছয় দফা আন্দোলন, ঊনসত্তরের গণঅভ্যুত্থান এবং ১৯৭১ সালের মুক্তিযুদ্ধে তার অসামান্য অবদান রাখেন।

হবিগঞ্জ ভাষা সংগ্রাম কমিটির আহ্বায়ক হিসেবে সংগঠক হিসেবে দক্ষতার পরিচয় দেন তিনি।

স্বাধীনতা যুদ্ধে হবিগঞ্জ মহকুমা সর্বদলীয় সংগ্রাম পরিষদের নির্বাহী সদস্য ছিলেন।

আরো বিশেষ বিশেষ প্রতিভার পরিচায়ক মোস্তফা শহীদ লেখক ও সাংবাদিক হিসেবেও কৃতি ছিলেন। তাঁর লেখা ‘খোয়াই নদীর বাঁকে’ বইটি বেশ পাঠক প্রিয় ছিলো। এছাড়াও তিনি মাসিক অভিযাত্রী পত্রিকার প্রকাশক ও সম্পাদক ছিলেন।

আইন পেশায়ও সফল একজন ব্যক্তিত্ব এ্যাডভোকেট এনামুল হক ১৯৭০ সালের প্রাদেশিক নির্বাচনে হবিগঞ্জের চুনারুঘাট-মাধবপুর আসন থেকে প্রাদেশিক পরিষদ সদস্য নির্বাচিত হন।

পরবর্তীতে বাংলাদেশের স্বাধীনতা লাভের পর ১৯৭৩ সালের প্রথম জাতীয় সংসদ নির্বাচনে সাবেক তৎকালীন সিলেট-১৭ আসন থেকে সংসদ সদস্য নির্বাচিত হন।

এর পর ১৯৯১ সালের পঞ্চম সংসদ, জুন ১৯৯৬ সালের সপ্তম, ২০০১ ও ২০০৮ সালের অষ্টম ও নবম জাতীয় সংসদ নির্বাচন নিয়ে মোট ৫ বার হবিগঞ্জ-৪ আসন থেকে জাতীয় সংসদের সদস্য হিসাবে নির্বাচিত হয়েছেন। এক কথায় সকল সুষ্ঠু ও স্বচ্ছ প্রতিটি নির্বাচনে তিনি নির্দ্বিধায় নির্বাচিত হয়েছেন।

এখন পর্যন্ত হবিগঞ্জ-৪ আসনটি সিলেট বিভাগে বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের একমাত্র শতভাগ নিশ্চিত আসন, যার ধারাবাহিকতা রক্ষায় অদ্যাবধি তাঁর ভূমিকা সবচেয়ে বেশী।

তিনি ৬ জানুয়ারি ২০০৯ সাল থেকে ২০১৪ সালের ১৪ মার্চ পর্যন্ত আওয়ামী লীগের নেতৃত্বে মহাজোট সরকারের প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার দ্বিতীয় মন্ত্রিসভার সমাজকল্যাণমন্ত্রীর দায়িত্ব পালন করেন তিনি।

১৯৭১ সালে বাংলাদেশের স্বাধীনতা যুদ্ধে অসামান্য অবদান রাখার জন্য তিনি স্বাধীনতা পুরস্কার লাভ করেছেন।

মুক্তিযুদ্ধে বিশেষ অবদানের স্বীকৃতি স্বরূপ ২০১৩ সালে তিনি একুশে পদক লাভ করেন।

এক কথায় প্রচারবিমুখ, সজ্জন এই মহান ব্যক্তির নামে চুনারুঘাট উপজেলা পরিষদ কমপ্লেক্সে অবস্থিত মিলনায়তনটি ‘বীর মুক্তিযোদ্ধা এনামুল হক মোস্তফা শহীদ অডিটরিয়াম’ রাখা হয়েছে।

এই বরেণ্য কিংবদন্তীকে গভীর শ্রদ্ধার সাথে স্মরণ করছি।

Facebook Comments
এ জাতীয় আরো খবর

ফেসবুকে আমরা

স্বত্ব সংরক্ষিত © 2020 চুনারুঘাট
কারিগরি Chunarughat
Don`t copy text!