1. admin@chunarughat24.com : admin :
চুনারুঘাটের বিশিষ্ট মুরুব্বি আলহাজ্ব আকল মিয়ার ৩য় শাহাদাত বার্ষিকী আজ
বুধবার, ২১ এপ্রিল ২০২১, ০২:০০ পূর্বাহ্ন
শিরোনাম :
ইসরায়েলের পার্লামেন্টারি কমিটির নির্বাচনে নেতানিয়াহুর পরাজয় বিশ্বের সোয়া ১৪ কোটি মানুষ করোনায় আক্রান্ত মিগুয়েল দিয়াজ ক্যানেল কিউবায় নতুন নেতা হিসেবে নির্বাচিত হলেন ফোর্বস ম্যাগাজিনে জায়গা পেলো বাংলাদেশী ৯ তরুণ ‘চিকিৎসক ও পুলিশের পাল্টাপাল্টি বিবৃতি কাম্য নয়’ ধান ৮০ শতাংশ পাকলেই কাটার তাগিদ দিয়েছে হবিগঞ্জ জেলা প্রশাসন সারাদেশের অধঃস্তন আদালতে ১০৬৮১ আসামীর জামিন চিকিৎসকের শব্দ অরুচিকর, ব্যবস্থা গ্রহণের দাবী জানালো পুলিশ সার্ভিস এসোসিয়েশন চট্টগ্রামে বিদ্যুৎকেন্দ্রে সংঘর্ষে শ্রমিক নিহতের ঘটনায় মামলা, তদন্ত কমিটি গঠন ‘কঠোর লকডাউন’ আরো এক সপ্তাহ বাড়ানোর সিদ্ধান্ত

চুনারুঘাটের বিশিষ্ট মুরুব্বি আলহাজ্ব আকল মিয়ার ৩য় শাহাদাত বার্ষিকী আজ

রিমন মুক্তাদির
  • সময় : সোমবার, ১ মার্চ, ২০২১
  • ৯০ বার পঠিত
চুনারুঘাটের বিশিষ্ট মুরুব্বি আলহাজ্ব আকল মিয়ার ৩য় শাহাদাত বার্ষিকী আজ

রিমন মুক্তাদির।। হবিগঞ্জ জেলার চুনারুঘাটের বিশিষ্ট ব্যবসায়ী নেতা, মুরুব্বি, সামাজিক ও ধর্মীয় নেতা আলহাজ্ব আবুল হোসেন আকল মিয়ার ৩য় শাহাদাত বার্ষিকী আজ।

২০১৮ সালের ১ মার্চ ভোরে চুনারুঘাট পৌর শহরের বাল্লা রোডে অবস্থিত নিজ বাসা থেকে ফজরের নামাজের উদ্দেশ্যে মসজিদে যাওয়ার পথে দুর্বৃত্তদের হামলায় গুরুতর আহত হন তিনি। আশংকাজনক অবস্থায় সিলেট এম এ জি মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে নিয়ে যাওয়ার পথে মৃত্যুবরণ করেন তিনি।

তাঁর মৃত্যুর ঘটনায় চারজনকে আসামী করে হত্যা মামলা দায়ের করেন নিহতের বড় ছেলে এডভোকেট নাজমুল ইসলাম বকুল। মামলার পর একই বছরের ৩০ মার্চ মামলার অন্যতম আসামী জসিম উদ্দিন শামিমকে ঢাকার তেজকুনিপাড়ার একটি বাসা থেকে গ্রেপ্তার করা হয়। পরের দিন ৩১ মার্চ আদালতে ১৬৪ ধারায় স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি দেয় শামিম।

মামলার এজাহারভুক্ত আরেক আসামী কুতুব আলী দীর্ঘদিন পলাতক থাকলেও শেষ পর্যন্ত তাকে গ্রেপ্তার করতে সক্ষম হয় র‍্যাপিড অ্যাকশন ব্যাটালিয়ন (র‍্যাব)। বিচারাধিন অবস্থায় জেল হাজতে তিনি মৃত্যুবরণ করেন।

আর মামলার অন্যতম এজাহারভুক্ত আসামী রঞ্জন পাল এখনো পলাতক রয়েছেন।

দীর্ঘ তিন বছরেও বিচার কার্যক্রম সম্পন্ন না হওয়ায় হতাশা প্রকাশ করছেন নিহতের পরিবার। রাজনৈতিক প্রভাবের কারণে মামলা বাধাগ্রস্ত হচ্ছে বলে মনে করছেন তারা।

সরকার ও বিচার বিভাগের কাছে এ হত্যাকাণ্ডের বিচারের জোর দাবী জানিয়ে আসছেন নিহতের পরিবারের সদস্য ও আত্মীয়-স্বজনেরা।

মৃত্যুবার্ষিকীতে তাঁর স্মরণে চুনারুঘাটের ব্যবসায়ী, সামাজিক ও ধর্মীয় সংগঠন বিভিন্ন কর্মসূচি গ্রহণ করে থাকে।

সুত্রঃ হবিগঞ্জের খবর।

Facebook Comments
এ জাতীয় আরো খবর

ফেসবুকে আমরা

স্বত্ব সংরক্ষিত © 2020 চুনারুঘাট
কারিগরি Chunarughat
Don`t copy text!